JANA BUJHA

আজকের সোনার দাম 2024 BEST

 আজকের সোনার দাম, আজকের সোনার দাম কত বা আজকে সোনার দাম কত ২০২৪ লিখে অনেকে জানতে চান গুগুলে। এই লিখার মধ্য দিয়ে জানতে পারবেন আজকে সোনার দাম কত।

 

আমরা প্রিয় জনকে গিফ্ট হোক কিংবা নিজের জন্য হোক, প্রায় সবসময়ই সোনার অলংকার  কিনে থাকি। মূলত সোনার অলংকার কেনার আগে অবশ্যই প্রতিটা মানুষের অন্তত একবার দর দাম নিয়ে আইডিয়া নিয়ে যাওয়া উচিৎ।

আজকের সোনার দাম

আইডিয়া নিয়ে গেলে  যেটা হবে আপনাকে খুব সহজে ব্যবসায়ীরা ঠকাতে পারবে না। তাই চলিুন আমরা আজকে জেনে নিব আজকের সোনার দাম কত?

 

আজকের সোনার দাম প্রারম্ভ

এখানে বলে রাখা ভাল যেহেতু বাজুস মানে বাংলাদেশ জুয়েলার্স এসোসিয়েশন সোনার দাম ঠিক করে তাই তাদের নির্ধারিত দামই আমরা কাউন্ট করবো।

 

আমরা জানি যে গত মাসের ডিসেম্বর এর ২৩ তারিখে বাজুস সোনার মূল্য নির্ধারণ করেন। এরপর আর কোন সাধারণ সভা হয়নি যেখানে নতুন মূল্য নির্ধারিত হবে। তাই ঐ আগের দামই এখনও আমরা আজকের সোনার দাম হিসাবে কাউন্ট করবো।

 

মুটামুটি ভাবে বলা যায় আজ ১২ জানুয়ারি যে দাম রয়েছে তা আগামী কয়েকদিনও থাকতে পারে। আর যদি বাজুস এর মাঝে দাম পরিবর্তন করে থাকে তাহলে আমরা তার আপডেট দিয়ে দিব।আজকের সোনার দাম

 

যাতে করে আপনি খুব সহজেই জানতেত পারবেন আজকের সোনার দাম কত বা আজ কি দামে সোনার বিক্রি হচ্ছে। ফলে আপনি কোনভাবেই আর ঠকবেন না। চলেন তাহলে শুরু করি।

 

সোনা পরিমাপক  হিসাব

স্বর্ণ এর তুলনা (ভরি) পরিমাণ
১ ভরি ১১.৬৬৪ গ্রাম
১ ভরি  ১৬ আনা 
১ ভরি  ১ তোলা 
১ ভরি  ৬৪.০৭ রতি
১ ভরি  ৮৫.৭৩ কেজি (প্রায়)
১ আনা  ৬ রতি

 

এখন জানব আজকের সোনার দাম। বাজারে ২৪ ক্যারেট, ২২ ক্যারেট, ২১ ক্যারেট, ১৮ ক্যারেট, এবং সনাতন পদ্ধতির সোনা পাওয়া যায়। প্রত্যেকের প্রয়োজন অনুসারে প্রত্যেকে আলাদা আলাদা সোনা কিনেন থাকে। তাই আমরা নিচে ছকের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রকার সোনার আজকের বাজার দাম তুলে ধরছি। 

আজকের সোনার দামঃবিভিন্ন প্রকার  সোনার দাম 

24 ক্যারেট স্বর্ণের দাম  

 

স্বর্ণের পরিমাণ( ২৪ ক্যারেট)  স্বর্ণের দাম ( বাংলাদেশী টাকায়)
১ ভরি স্বর্ণ ১১৩,০০০ টাকা (আনুমানিক)
১ গ্রাম স্বর্ণ  ৯৬৮৭ টাকা 
১ আনা  স্বর্ণ ৭০৬২.৫ টাকা 
১ রতি স্বর্ণ  ১,৭৬৩.৬৯ টাকা 
১ তোলা স্বর্ণ ১১৩০০০ টাকা 
 ১০ গ্রাম স্বর্ণ  ৯৬,৮৭০ টাকা 
 ১ কেজি স্বর্ণ ৯৬৮৭৪৯০ টাকা (প্রায়) 

 

আমরা জানলাম ২৪ ক্যারেট স্বর্ণের দাম। যা পরিমাণ অনুসারে তুলে ধরা হয়েছে। আপনি যদি সোনা কিনতে যান তাহলে আলাদা করে আপনাকে হিসাব করতে হবে না। আমাদের এই লিখা পড়লে আপনি খুব সহজেই জানতে পারবেন সোনার দাম। এখন আমরা জানবো ২২ ক্যারেট সোনার দাম- 

 

২২ ক্যারেট স্বর্ণের দাম  

 

স্বর্ণের পরিমাণ( ২২ ক্যারেট)  স্বর্ণের দাম ( বাংলাদেশী টাকায়)
১ ভরি স্বর্ণ ১১১,০৪১ টাকা 
১ গ্রাম স্বর্ণ  ৯৫২০ টাকা 
১ আনা  স্বর্ণ ৬,৯৪০ টাকা 
১ রতি স্বর্ণ  ১,৬৩২ টাকা 
১ তোলা স্বর্ণ ১১১০৪১ টাকা 
 ১০ গ্রাম স্বর্ণ  ৯৫,২০০ টাকা 
 ১ কেজি স্বর্ণ ৯৫২০০০ টাকা 

 

আমরা ২৪ ও ২২ ক্যারেট সোনার দাম জানলাম এখন জানব ২১ ক্যারেট স্বর্ণের দাম। আজকের সোনার দাম

 

 

২১ ক্যারেট স্বর্ণের দাম  

স্বর্ণের পরিমাণ( ২২ ক্যারেট)  স্বর্ণের দাম ( বাংলাদেশী টাকায়)
১ ভরি স্বর্ণ ১০৬০২৬ টাকা 
১ গ্রাম স্বর্ণ  ৯০৯০ টাকা 
১ আনা  স্বর্ণ ৬,৬২৬ টাকা 
১ রতি স্বর্ণ  ১,৬৫৪ টাকা 
১ তোলা স্বর্ণ ১০৬০২৬ টাকা 
 ১০ গ্রাম স্বর্ণ  ৯০৯০০ টাকা 
 ১ কেজি স্বর্ণ ৯০৯০০০ টাকা 

 

যাক এইমাত্র আমরা জেনে গেলাম ২১ ক্যারেট স্বর্ণের দাম। এখন আমরা জানব ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের দাম। 

 

১৮ ক্যারেট স্বর্ণের দাম  

স্বর্ণের পরিমাণ( ১৮ ক্যারেট)  স্বর্ণের দাম ( বাংলাদেশী টাকায়)
১ ভরি স্বর্ণ ৯০৮৬৩ টাকা 
১ গ্রাম স্বর্ণ  ৭৭৯০ টাকা 
১ আনা  স্বর্ণ ৫৬৭৮ টাকা 
১ রতি স্বর্ণ  ১,৪১৮ টাকা 
১ তোলা স্বর্ণ ৯০৮৬৩ টাকা 
 ১০ গ্রাম স্বর্ণ  ৭৭৯০০ টাকা 
 ১ কেজি স্বর্ণ ৭৭৯০০০ টাকা 
আমরা এখন জানব সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণের দাম। আমাদের বাজারে সনাতন পদ্ধতির 
স্বর্ণের প্রচলন কম নয়।

সনাতন পদ্ধতির স্বর্ণের দাম/ মূল্য  

স্বর্ণের পরিমাণ( সনাতন পদ্ধতি)  স্বর্ণের দাম ( বাংলাদেশী টাকায়)
১ ভরি স্বর্ণ ৭৫৭০০ টাকা 
১ গ্রাম স্বর্ণ  ৬৪৯০ টাকা 
১ আনা  স্বর্ণ ৪৭৩২ টাকা 
১ রতি স্বর্ণ  ১,১৮২ টাকা 
১ তোলা স্বর্ণ ৭৫৭০০ টাকা 
 ১০ গ্রাম স্বর্ণ  ৬৪৯০০ টাকা 
 ১ কেজি স্বর্ণ ৬৪৯০০০ টাকা 

আমরা যে দাম গুলো এখানে তুলে ধরেছি তা বাজুস এর দ্বারা নির্ধারিত করা হয়েছে। গত ২৩
ডিসেম্বর বাজুস বা বাংলাদেশে জুয়েলারি সমিতি এই মূল্য তালিকা প্রকাশ করেছে। যখন আবার
নতুন কোন সিদ্ধান্ত হবে তখন আমরা সেই মূল্য তালিকা প্রকাশ করবো। 

 

Read More…..  স্বর্ণের বর্তমান দামঃ স্বর্ণের দাম

 

আশা করি আপনারা আপনাদের কাঙ্খিত সোনার দাম নিয়ে জানতে পেরেছেন। এখন আমরা সোনা বিষয়ক সাধারণ কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো। যা আপনার কাজে লাগবে যখন আপনি সোনার অলংকার কিনতে যাবেন। আজকের সোনার দাম

আজকের-সোনার-দাম-
                                                                        আজকের-সোনার-দাম

 

 

স্বর্ণ কেনার সময় যে বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবেঃআজকের সোনার দাম

বিয়ে বা অন্য কোন অনুষ্ঠানে প্রিয় মানুষটির জন্য স্বর্ণে তৈরী কোন অলংকার উপহার দিতে চাচ্ছেন কিন্তু আপনি না জেনে না বুঝে হুট করে স্বর্ণের অলংকার কিনে নিলেন। এরপর দেখলেন কয়দিন পর সেই অলংকার কালো হয়ে যাচ্ছে, কালারও কেমন যেন ফ্যাকাশে হয়ে যাচ্ছে। 

 

তার মানে দাড়াচ্ছে আপনি যে অলংকার কিনেছেন তা আসল স্বর্ণ নয়। আর প্রিয় মানুষটির খুশীর জন্য তাকে উপহার দিলেন আর সেই মূল্যবান উপহার দুই নাম্বার হওয়ার জন্য আপনার সম্পর্ক আরও অবনতি হল। স্বর্ণের বর্তমান দাম

তাই স্বর্ণ কেনার আগে অবশ্যই কিছু বিষয় আপনার মাথায় রাখতে হবে। চলুন জেনে নেই খুঁটিনাটি সেই বিষয় গুলো- 

কত ক্যারেট এর সোনা কিনতে যাচ্ছেনঃ স্বর্ণের মধ্যে খাদ থাকে। খাঁদ না থাকলে বরং সমস্যা। কিন্তু প্রশ্ন হলো কতটুকু খাঁদ থাকতে হবে। মূলত ২৪ ক্যারেট এর যে স্বর্ণ তাতে খাঁদের পরিমাণ ০.১ পরিমান। যেখানে মূলত ৯৯.৯ পরিমাণ স্বর্ণ রয়েছে। 

 

কিন্তু এই স্বর্ণ দিয়ে কোন অলংকার তৈরী করা যায় না। 

স্বর্ণের বর্তমান দাম

আবার ২২ ক্যারেট এর সোনায় থাকে ৯১.৬% খাঁটি স্বর্ণ এবং ২১ ক্যারেটে থাকে ৮৭% খাঁটি সোনা। এই দুই ধরনের স্বর্ণ দিয়েই মূলত স্বর্ণের অলংকার তৈরী করা হয়ে থাকে। মূলত একদম খাঁটি সোনা মানে ২৪ ক্যারেট সোনা দিয়ে অলংকার 

তৈরী হবে না কারণ এই সোনা অত্যন্ত নরম। যাকে কোন শেইপ দেয়া যাবে ঠিকই কিন্তু নরম হওয়ার কারনে সহজে আবার অন্য শেইপ নিয়ে নিবে। আবার খাঁদ এর মাত্রা বেশী হয়ে গেলেও কিছু দিন পর স্বর্ণের যে কালার তা হারাতে থাকবে। 

তাহলে করণীয় কী? কিভাবে বুঝবো যে কোন স্বর্ণে কতটুকু খাঁদ রয়েছে। খাঁদ বেশী থাকা যেমন ভাল না আবার স্বর্ণে খাঁদ এর পরিমাণ একবারে কমম থাকাও ভাল না। 

 

ভেজাল স্বর্ণ না খাঁটি স্বর্ণ তা যেভাবে বুঝবোঃ আজকের সোনার দাম

 স্বর্ণে মিশানো খাঁদের উপর যেহেতু  নির্ভর করে ভেজাল আর খাঁটির তাই  তা পরীক্ষা করার জন্য স্পেকট্রোমিটার নামে একটা যন্ত্র রয়েছে। এই যন্ত্রে স্বর্ণ পরিমাপের পর যন্ত্রই বলে দিবে যে স্বর্ণে কতটুকু

 

খাঁদ রয়েছে আর কতটুকু আসল স্বর্ণ। তাই  কেনার সময় দোকানদারকে বলবেন আপনাকে যেন স্পেকট্রাম মেশিনে মেপে এবং আপনাকে দেখিয়ে স্বর্ণ দেয়। তাহলে কিছুটা হলেও প্রতারণা থেকে মুক্ত হতে পারবেন। 

দরদাম করাঃ

 আমাদের অনেকেই আছেন যারা স্বর্ণের দরদাম তেমন করতে চান না। কিন্তু এটা করা বোধহয় ঠিক না। আপনার যতই টাকা থাকুক আসল দাম জেনে তারপরই সোনা কিনুন। আর দরদাম করে পণ্য কেনাও সুন্নত। স্বর্ণের বর্তমান দাম

তৈরীর উপর বিশেষ মূল্য ছাড়: 

বিশেষ ছাড়ের কথা বলে ব্যবসায়ীরা আপনাকে নকল সোনা ধরিয়ে দিতে পারে। ধরেন এক দোকানে যে টাকায় সোনা কিনছেন অন্য দোকানে মুজুরি মূল্য ফ্রী। তাহলে আপনি ফ্রী পেয়ে সেই দোকানেই স্বর্ণ কিনতে যাবেন।আজকের সোনার দাম

আরো পড়ুনঃ GOLD RATE IN BAHRIN

 

তাই সেই দোকানের স্বর্ণটা কেমন তা আগে পরীক্ষা করুন। ফ্রী পেলাম আর ঝটপট কিনে নিলাম এমনটা করা বুদ্ধিমানের কাজ হবে না। তাই বিশেষ মূল্য ছাড় এর ফাঁদে পা দিবেন না। তবে সব প্রতিষ্ঠান যে ঠক বা প্রতারক হবে তা কিন্তু নয়। মূল কথা আপনারা যেন ফঁদে পা না দেন সেই জন্যই এত কথা। 

 

কয়েক দোকান ঘুরুনঃ অনেকেরই পরিচিত কেই হয়ত স্বর্ণের ব্যবসা করে আর আপনি গিয়ে তার কাছ থেকে অফলংকার কিনে নিয়ে আসেন।

এটা করতে পারেন যদি ব্যবসায়ী একান্তই আপনার বিশ্বস্ত হয়। তবে ভাল হয় বেশ কিছু দোকান দেখে, কথা বলে যাচাইবাছাই করে তারপর অলংকার কেনা। তাই বেশ কিছু দোকান যাচাই-বাছাই করে তারপর স্বর্ণ কিনুন। 

পাথরযুক্ত  স্বর্ণ

সোনার গয়নায় পাথর যেন চোখকে আরও বেশী আকর্ষণ করে। পাথর এর জন্য স্বর্ণ দিয়ে তৈরী অলংকার যতই দেখতে সুন্দর হোক না কেন আপনার মূল উদ্দেশ্য হওয়া উচিৎ ভাল স্বর্ণ কেনা। দেখতে সুন্দর হলেই 

যে  স্বর্ণ ভাল হয়ে যাবে তার কোন কারণ নেই। তাই দেখতে সুন্দর, নানা বাহারি রংয়ের পাথরে মোড়ানো স্বর্ণ কেনার আগে নিজেকে প্রশ্ন করে নিবেন, যে স্বর্ণটা কিনছি তা কি আসল নাকি এত কোন ভেজাল আছে।

স্বর্ণ কিনে বিনিয়োগ করাঃ

স্বর্ণ কিনে অনেকে ব্যবসা করতে চান। আর ব্যবসা করতে চাইলে আপনাকে চোখ কান খোলা রাখতে হবে। ‍যদি আপনি ব্যবসা করতে চান তাহলে আপনাকে সবসময় বাজারের খবর রাখতে হবে। কোথা থেকে ভাল স্বর্ণ কিনতে পারেন তার খোঁজখবর রাখা জরুরি। 

 

আর যদি আপনি দেশের বাহিরে কারও সাথে লিংক রাখতে পারেন তাহলে হয়ত আরও ভাল খবর এবং ভাল দামে স্বর্ণ কিনতে পারবেন। তাই স্বর্ণ কিনে বিনিয়োগ ভাল ব্যবসা বটে কিন্তু আপনাকে এক্ষেত্রে চৌকোষ হতে হবে।  স্বর্ণ ব্যবসায় যেমন লাভ তেমনই লস এরও সম্ভাবনা রয়েছে। যদি ভেজাল স্বর্ণ কিনেন তাহলে আপনার ব্যবসায় লাল বাত্তি জলবে। আজকের সোনার দাম

 

আমেরিকার সংবাদমাধ্যম  সিবিএস এর এক প্রতিবেদনে বলা হয় যদি ব্যবসায়ীরা মোটা দাগে ৫ টি বিষয়কে মাথায় রেখে ব্যবসার উদ্দেশ্যে আগায় তাহলে  ধোঁকার হাত থেকে বাঁচার সম্ভাবনা অনেকটাই বেশী।

১. ডিলারের সুনাম : 

স্বর্ণ কেনার আগে প্রসিদ্ধ ডিলারকে বেছে নেন। যারা দীর্ঘদিন ধরে বাজারে ব্যবসা করে আসছে। কারণ বাজারে ফেইক এর অভাব নেই। যেহেতু সহজে দেখেই আপনি বুঝতে পারবেন না যে কোনটা আসল স্বর্ণ আর কোনটা নকল স্বর্ণ তাই খ্যাতনামা ডিলারের কাছ থেকে স্বর্ণ কিনলে কিছুটা হলেও নিশ্চিত থাকতে পারেন। স্বর্ণের বর্তমান দাম

২. বিশুদ্ধতা : 

ভাল ডিলারের কাছ থেকে স্বর্ণ কিনলেই আপনার দায়িত্ব শেষ না। আপনি নিজে স্বর্ণের বিশুদ্ধতা পরীক্ষা করে নিন। আপনি  কি উদ্দেশ্যে স্বর্ণ নিচ্ছেন এবং কোন স্বর্ণ নিচ্ছেন তা যাচাই-বাছাই করে নিন।আজকের সোনার দাম

 

২৪ ক্যারেট না কি ২২ নাকি ১৮ ক্যারেট স্বর্ণ নিচ্ছেন তা যাচাই বাছাই করে নিন। তাই একজন ব্যবসায়ী হিসেবে আপনাকে আগে থেকেই সতর্ক হয়ে যেতে হবে এবং বিশুদ্ধ স্বর্ণ চেনার সকল কলাকৌশল আপনাকে জেনে নিতে হবে। 

৩. ওজন দেখে কিনুন : 

আপনি যখন স্বর্ণ কিনবেন তখন স্বর্ণের বার ও কয়েন হয়ত কিনবেন আপনি। যেহেতু ওজন এর সামান্য তারতম্য হলেই দাম অনেক পরিবর্তন হয়ে যায় তাই কেনার আগে ওজনটা ভালভাবে বুঝে নিন। স্বর্ণের বার মূলত ট্রয় আউন্সে পরিমাপ করা হয়।

 

একটা স্বর্ণের বার মূলত ৪০০ বার আউন্স হয়ে থাকে। আর কয়েন ১ ট্রয় আউন্স , ১/২ ট্রয় আউন্স, ১/৪ ট্রয় আউন্স এবং ১/১০ ট্রয় আউন্স ওজনের হয়। তাই ওজনটা ভাল করে পরীক্ষা করে তারপর স্বর্ণ কিনুন। আজকের সোনার দাম

     স্বর্ণের বর্তমান দাম

৪.হলমার্ক দেখে নিনঃ 

হলমার্ক দেখে স্বর্ণ কিনুন। যতই আপনি নামিদামী প্রতিষ্ঠান থেকে স্বর্ণ কিনুন না কেন অবশ্যই যাচাই-বাছাই করে স্বর্ণ কিনতে হবে। আর সেই জন্য আপনি প্রথমেই স্বর্ণের গায়ে হলমার্ক দেখে নিন। আরও একটি কাজ করতে পারেন,  চৌম্বক দিয়ে স্বর্ণ পরীক্ষা করে নিতে পারেন। স্বর্ণ চৌম্বক দ্বারা আকর্ষণ হবে না। আজকের সোনার দাম

 

৫. প্রিমিয়াম মূল্য : স্বর্ণের মূল্য অবশ্যই প্রিমিয়াম থাকবে। আসল স্বর্ণ কখনই অল্প মূল্যে বিক্রি হবে না। যদি তা হয় তাহলে বুঝতে হবে কোথাও সমস্যা আছে। আসল সোনা প্যাকেটজাত হয় এবং এর মধ্যে উৎপাদনের তারিখও লিখা থাকে। তাই  কেনার সময় এসব বিষয়ও মাথায় রাখতে হবে। এর পাশাপাশি আগামীতে বাজার কেমন থাকবে বা কেমন হতে পারে তাও মাথায় রাখতে হবে।আজকের সোনার দাম

 

খাটি স্বর্ণ চেনার উপায় কি? আজকের সোনার দাম

স্বর্ণের বর্তমান দাম

হলমার্ক দেখে নিন: 

হলমার্ক দেখে স্বর্ণ কিনুন। স্বর্ণ এর মাঝে খোদাই করে লিখা থাকে ২৪/২২/২১/১৮ ক্যারেট এর সোনা। সাধারণত ২৪ ক্যারেট এর সোনা সবচেয়ে বেশী বিশুদ্ধ কিন্তু তা দিয়ে অলংকার তৈরী করা যায় না। তাই ২২ ক্যারেট সোনাই বেশী ভাল যদি আপনি অলংকার কিনে থাকেন। তাই প্রথমে হলমার্ক এর লিখা দেখে খাঁটি সোনা চিনে নিতে হবে। 

সোনায় লোহা মেশানো: 

খাঁটি সোনা চেনার আরেক উপায় হল চুম্বক দিয়ে পরীক্ষা করা। আপনি যদি খাঁটি সোনা কিনেন তাহলে 

সোনায় যদি লোহা মেশানো থাকে, তা হলে চুম্বক ধরলেই সেটা টেনে নেবে। সোনায় লোহা মোশানো আছে কি না, তা চুম্বক ব্যবহার করে অবশ্যই পরখ করে নিন।আজকের সোনার দাম

স্বর্ণের বর্তমান দাম

রাসায়নিক ও এসিড

আপনি বাজার থেকে কিছু এসিড নিতে পারেন সোনা পরীক্ষা করার জন্য। একটা ড্রপারে নাইট্রিক এসিড নিন এরপর তা স্বর্ণে ওপর দু এক ফোঁটা করে ফেলুন। যদি এরফলে রং পরিবর্তন হয়ে যায় তাহলে বুঝতে হবে যে স্বর্ন ভেজাল। আর যদি কোন রং এর পরিবর্তন না হয় তাহলে বুঝতে হবে যে সোনাটি খাঁটি। 

সাদা চিনেমাটির প্লেট: 

আপনি শুনলে কিছুটা অবাকই হবেন যে একটা চিনেমাটির প্লেইট এর মাধ্যমে বুঝতে পারবেন আপনার সোনা আসল নাকি নকল। প্রথমে সোনার 

গয়নাটি চিনামাটির প্লেইট এর উপর ঘষুন এরপর কিছুক্ষণ পর যদি প্লেইট এর উপর কাল দাগ পড়ে যায় তাহলে বুঝতে হবে স্বর্ণটি নকল। 

স্বর্ণের বর্তমান দাম

আর যদি প্লেইট এর উপর সোনালী রং পড়ে তাহলে বুছতে হবে স্বর্ণটি আসল। এখন বাসায় থাকা অলংকারটি নিয়ে পরীক্ষা করে দেখুন আপনার সোনার অলংকার আসল নাািক নকল। 

 

আরো পড়ুনঃ আকাশ নিয়ে ক্যাপশনঃআকাশ

 

দুই গ্লাস পানি পরীক্ষা:

 

একটা পাত্র নিন। এরপর সেই পাত্রে দুই গ্লাস পানি নিন। সেই পানির মাঝে স্বর্ণের তৈরী অলংকারটি রাখুন। যদি অলংকার ভেসে থাকে তাহলে বুঝতে হবে যে স্বর্ণটি নকল। আর যদি তা পুরোপুরি ডুবে যায় তাহলে বুঝতে হবে যে এটি আসল। আজকের সোনার দাম

দাঁতে কামড়: 

আপনি যে সোনার অলংকারটি কিনেছেন বা তৈরী করেছেন তার গাঁয়ে দাঁতে কামড় দিন। যদি অলংকার এর গাঁয়ে হালকা দাগ পড়ে তাহলে বুঝতে হবে যে এটি 

আসল সোনা। আর যদি এতে কোন দাগ বা রেখাপাত না হয় তাতে বুঝতে হবে যে এটিতে বেশী পরিমাণ অন্য ধাতুর ভেজাল মেশানো আছে। তাতে দাঁতে কামড়ে বুছে নিন স্বর্ণ আসল নাকি নকল। 

 

ভিনেগার দিয়ে পরীক্ষা: 

সোনার যে অলংকার তৈরী করেছেন তাতে কয়েক ফোঁটা ভিনেগার দিন । এরপর যদি দেখেন স্বর্ণের রং পরিবর্তন হয়েছে  তাতে বুঝবেন স্বর্ণ ভেজাল। আর যদি বোঝেন যে এটরে রং পরিবর্তন হয় নি তাহলে বুঝতেত  হবে এটি আসল সোনা। 

 

ঘাম দিয়ে খাঁটি সোনা পরীক্ষা: 

সাধারণত ঘামের সংস্পর্শে সোনা রাখলে তাতে ঘামের গন্ধ করে না। তাছাড়া ঘামের কারণে কোন বিক্রিয়াও করে না। আর যদি সোনার মধ্যে ঘামের গন্ধ ধরে তাহলে বুঝতে হবে এটি ভেজাল সোনা। 

বিশ্বস্ত দোকানী: 

নকল সোনা কিনতে না চাইলে এমন দোকান থেকে স্বর্ণ কিনবেন যাদের দীর্ঘ দিনের সুনাম রয়েছে বাজারে। বহুদিন ধরে ব্যবসা করে আসছে। আর যদি একান্ত বিশ্বস্ত দোকানীর কাছ থেকে অলংকার কিনতে পারেন তাহলেতো আর টেনশন এর কারণই নেই। তাই বিশ্বস্ত দোকান থেকে স্বর্ণ কিনুন। 

 

আশা করি বিস্তারিত বলতে পেরেছি। তারপরও যে সীমাবদ্ধতা আছে বলে আপনার মনে হয়েছে তা আমাাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আজ তাহলে এই অব্দিই। ভাল থাকেন সবাই আর জানাবোঝা পরিবারের সাথেই থাকেন।

 

Leave a Comment